বুধবার , ০১ নভেম্বর ২০১৭

রোহিঙ্গা শরণার্থী প্রত্যাবাসনে বাংলাদেশ সরকার ইচ্ছাকৃত বিলম্ব করছে বলে জানিয়েছে মিয়ানমার। সরকার আন্তর্জাতিক দাতাকে সংস্থা থেকে কোটি কোটি টাকা বরাদ্দ পাওয়ার আশায় ইচ্ছাকৃত বিলম্ব করছে বলেও মিয়ানমার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে।

মিয়ানমারের গণতান্ত্রিক নেত্রী অং সান সুচি’র মুখপাত্র জ্যা হত্যে বলেন, ‘মিয়ানমার ১৯৯২ সালের চুক্তি অনুযায়ী যেকোনো সময়ে প্রত্যাবাসন করতে প্রস্তুত। বাংলাদেশ চুক্তির শর্ত মেনে নিচ্ছে না, একারণেই প্রত্যাবাসনে বিলম্ব হচ্ছে।’

মিয়ানমার স্টেট কাউন্সিলর অফিসের ডিরেক্টর জেনারেল হত্যে সাংবাদিকদের এই বিলম্বের পেছনে অর্থনৈতিক স্বার্থ আছে বলে ইঙ্গিত দেন। হত্যে মিয়ানমারের গেøাবাল নিউ লাইট পত্রিকায় এ কথা বলেন, ‘তারা (বাংলাদেশ) ৪০০ মিলিয়ন ডলার আন্তর্জাতিক সাহায্য পেয়েছে। এখন তারা প্রত্যাবাসন বিষয়ে ধীরতা দেখাচ্ছে।’

বাংলাদেশ গত বৃহস্পতিবার জানায়, মিয়ানমার সরকার গত সপ্তাহের মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকে বাংলাদেশের প্রস্তাবিত ১০ দফা মেনে নিতে রাজি নয়।

উল্লেখ্য, গত ২৫ আগস্ট কিছু রোহিঙ্গা বিদ্রোহী মায়ানমার বর্ডার গার্ড ও পুলিশ চেক পোস্টে হামলা চালালে মায়ানমার সেনাবাহিনী বিদ্রোহ দমনের নাম রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠীর উপর নৃশংস হামলা চালায় যা জাতিসংঘ ‘জাতিগত নিধন’ বলে অবিহিত করেছে। এখন পর্যন্ত ৬ লক্ষ ৭ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণ করেছে।

 জাতীয় থেকে আরোও সংবাদ

আর্কাইভ