শনিবার , ১৫ মে ২০২১ |

হোয়াটসঅ্যাপ-ইনস্টাগ্রামের মালিকানা হারাতে পারে ফেসবুক

অনলাইন ডেস্ক   বৃহস্পতিবার , ১০ ডিসেম্বর ২০২০

যুক্তরাষ্ট্রে আইনি বাধায় পড়ে ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটস অ্যাপ বিক্রি করতে বাধ্য হতে পারে ফেসবুক। বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানায়, ফেডারেল ট্রেড কমিশনসহ যুক্তরাষ্ট্রের প্রায় সবগুলো অঙ্গরাজ্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটির বিরুদ্ধে মামলা করেছে।

অভিযোগে বলা হয়েছে, ‘হয় বিক্রি করো নয়তো মরো’-এ নীতির মাধ্যমে প্রতিদ্বন্দ্বী কোম্পানিগুলোকে দাঁড়াতে দেয় না ফেসবুক। বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমটির বিরুদ্ধে দুইটি মামলা করা হয়েছে। চলতি বছরে দ্বিতীয় কোনো টেক জায়ান্ট এমন আইনি বাধার মুখে পড়ল।

অক্টোবরে আলফাবেট ইনকর্পোরেটেডের গুগলের বিরুদ্ধে একই ধরনের ব্যবস্থা নেয় মার্কিন কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ, মার্কেট শক্তি প্রয়োগ করে প্রতিদ্বন্দ্বীদের ঠেকিয়ে রেখেছে বিশ্বের সবচেয়ে বড় সার্চ ইঞ্জিন কোম্পানিটি।

ফেসবুকের বিরুদ্ধে অভিযোগ, এটি প্রতিদ্বন্দ্বী কোম্পানিদের কিনে নিচ্ছে। এতে উঠে আসে ছবি শেয়ারিং অ্যাপ ইনস্টাগ্রাম ও মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপকে কিনে নেওয়ার বিষয়টি। ২০১২ সালে এক বিলিয়ন ডলারে ইনস্টাগ্রাম এবং ২০১৪ সালে ১৯ বিলিয়ন ডলারে হোয়াটসঅ্যাপ কিনে নেয় ফেসবুক।

প্রযুক্তি ব্যবসায় দুই বড় কোম্পানির আধিপত্য বিস্তারের বিষয়টি নজরে আনা হয় এসব মামলায়। এ নিয়ে ক্ষমতাসীন ট্রাম্প প্রশাসন এবং ডেমোক্র্যাটদের মধ্যকার চুক্তিকে বিরল ঘটনা হিসেবে দেখা হচ্ছে। যাদের মধ্যে কেউ কেউ গুগল ও ফেসবুককে ভেঙে ফেলার জন্য মত দিয়েছেন।

৪৬টি অঙ্গরাজ্যের পক্ষে নিউ ইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল লেটিয়া জেমস বলেন, ‘প্রায় এক দশক ধরে মার্কেটে আধিপত্য বিস্তার করছে ফেসবুক। একচেটিয়া শক্তি ব্যবহার করে ছোট প্রতিদন্দ্বীদের ধসিয়ে দিচ্ছে। যা ব্যয় বাড়াচ্ছে প্রতিদিনের ইউজারদের।’ মামলায় অঙ্গরাজ্যগুলো জিতলে ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপ বিক্রি করে দিতে হতে পারে ফেসবুককে।

এদিকে ফেসবুকের অভ্যন্তরীণ আলোচনার প্ল্যাটফর্মে এক পোস্টে কোম্পানিটির প্রধান নির্বাহী মার্ক জাকারবার্গ কর্মীদের জানান, এ মামলার ফলে নির্দিষ্টি টিমগুলো বা তাদের ভূমিকায় কোনো প্রভাব পড়বে এমনটা প্রত্যাশা করেন না তিনি। এ ছাড়া পুরো আইনি প্রক্রিয়ায় এটি মাত্র প্রথম ধাপ। বিষয়টি পুরোপুরি সুরাহা হতে কয়েক বছর সময় লেগে যেতে পারে।

 তথ্য প্রযুক্তি থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ