মঙ্গলবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ |

লিটন-মাহমুদউল্লাহয় ঘুরে দাঁড়াল বাংলাদেশ

দেশকাল স্পোর্টস ডেস্ক:   বৃহস্পতিবার , ০৮ July ২০২১

জিম্বাবুয়ের বোলারদের তোপে দিনের শুরুতে বাংলাদেশ ছিল দিশেহারা। অধিনায়ক মুমিনুল হক একা টানছিলেন দলকে। পরে লিটন দাস ও মাহমুদউল্লাহ উপহার দিলেন রেকর্ড জুটি। তাতে হারারে টেস্টের প্রথম দিন শেষে স্কোরবোর্ডে বলার মতো রান সফরকারী টাইগারদের।

বুধবার প্রথম দিনের খেলা শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৮ উইকেটে ২৯৪। আলোকস্বল্পতায় দিনের খেলা ৭ ওভার বাকি থাকতেই শেষ হয়। নার্ভাস নাইনটিতে কাটা পড়া লিটন দাস ১৪৭ বলে ১৩ চারে করেন ৯৫ রান। এর আগে চারে নেমে অধিনায়ক মুমিনুল হক ৯২ বলে ১৩ চারে করেন ৭০ রান। ১৭ মাস পর টেস্টে ফেরা মাহমুদউল্লাহ ১৪১ বলে ৫৪ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন। অন্য প্রান্তে তাসকিন আহমেদের ১৫ বলে ১৩ রানে অপরাজিত।

এরপর ব্যাটিংয়ে আসবেন ইবাদত হোসেন। বৃহস্পতিবার ম্যাচের দ্বিতীয় দিনে বাংলাদেশ স্কোরটা কত দূর টেনে নিতে পারে সেটি এখন দেখার।

মাত্র ১৩২ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে খাদের কিনারে চলে যাওয়া বাংলাদেশ মাহমুদউল্লাহ ও লিটনের দৃঢ়তায় ঘুরে দাঁড়ায়। সপ্তম উইকেটে এই দুজন যোগ করেন ১৩৮ রান। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সপ্তম উইকেটে যা বাংলাদেশের রেকর্ড। আগের সেরা ছিল ৭৩, ২০১৮ সালে মাহমুদউল্লাহ ও মেহেদী হাসান মিরাজের।

লিটন-মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে যখন ম্যাচ বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রণে, জিম্বাবুয়ের পেসার ডোনাল্ড তিরিপানো তখন পর পর দুই বলে তুলে নেন লিটন ও মেহেদী হাসান মিরাজকে। মাত্র ৫ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাওয়া হয়নি লিটনের। তিরিপানোর বলে পুল করতে গিয়ে স্কয়ার লেগে ভিক্টর নিয়াচির হাতে ক্যাচ হন। ঠিক পরের বলেই মিরাজকে এলবিডব্লিউয়ের ফাঁদে ফেলেন তিরিপানো। দিনের শেষে এই দুইটা উইকেট বাংলাদেশের জন্য আফসোসই হয়ে থাকবে। আর দিনের শুরুটা তো ভুলে যেতে চাইবে সফরকারী দল।

টস জিতে ব্যা্ট করতে নেমে টপ অর্ডার পুরো ব্যর্থ। ইনজুরির কারণে তামিম ইকবাল নেই। ওপেন করতে নামেন দুই তরুণ সাইফ হাসান ও সাদমান ইসলাম। দিনের প্রথম ওভাবেই সাইফ (০) সাজঘরে ফেরেন। তিনে নেমে নাজমুল হোসেন শান্তও (২) এই পথ ধরেন। দুটি উইকেটই দেন ব্লেসিং মুজারাবানি।

তৃতীয় উইকেটে সাদমান ইসলামকে নিয়ে প্রতিরোধ গড়ার চেষ্টা করেন ‍মুমিনুল। জুটিটা জমেও গিয়েছিল। ২৩ রান করা সাদমানকে ফিরিয়ে যে জুটি ভাঙেন রিচার্ড এনগারাভা।

এরপর মুশফিকুর রহিম ও সাকিব আল হাসানও হতাশ করেন। ৩০ বলে ১১ রান করা মুশফিককে নিজের তৃতীয় শিকার বানান মুজারাবানি। ৩ রান করা সাকিবকে ফিরিয়েছেন ভিক্টর নিয়াচি। মুমিনুলের উইকেটও নিয়েছেন এই ডানহাতি পেসার। জিম্বাবুয়ের পক্ষে দিনের সবচেয়ে সফল মুজারাবানি ১৬ ওভার বল করে ৪৮ রান খরচায় ৩ উইকেট নিয়েছেন।

 খেলাধুলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ