মঙ্গলবার , ২১ সেপ্টেম্বর ২০২১ |

মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তনের গল্প

দেশকাল স্পোর্টস ডেস্ক:   বৃহস্পতিবার , ০৮ July ২০২১

শেষ টেস্টটা খেলেছিলেন ১৬ মাস আগে। এরপর টেস্ট দল থেকে বাদ দেয়া হয় তাকে। অজুহাতের অভাব নেই। ফিটনেস নেই, বয়স কম, কোচের পছন্দ নয় এমন সব অভিযোগে দেশের অন্যতম সেরা এই ব্যাটসম্যানকে বাদ দেয়া হয়।

এই জিম্বাবুয়ে সফরেও টেস্ট সিরিজের দলে ছিলেন না মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। তামিম ইকবালের ইনজুরি থাকায় শেষমুহুর্তে দলে নেয়া হয় তাকে। আর খেলতে নেমেই কি দারুণভাবেই না জবাব দিয়েছেন সব অভিযোগের!

১ম দিনের ১ম ইনিংসে রিয়াদ খেলতে নামেন ৮ নাম্বারে! ততক্ষণে দল বেশ বিপদে। টপঅর্ডার ভুতুড়ে পরিস্থিতিতে রেখে যায় দলকে। ১৩২ রানে ৬ উইকেট হারিয়ে ধুঁকতে থাকা দলকে টেনে নেন রিয়াদ। লিটন দাসকে সঙ্গে নিয়ে গড়েন ১৩৮ রানের জুটি।

পরপর দুই বলে লিটন ও মিরাজের বিদায়ের পর পেসার তাসকিন আহমেদকে নিয়ে আবারো লড়াই শুরু রিয়াদের। অভিজ্ঞ কাঁধে তুলে নেন দলের দায়িত্ব। সঙ্গ দেন তাসকিনও।

প্রথম দিনে ২৪ রানের জুটির পর সেটিকে দ্বিতীয় দিনে দু’জনে টেনে চলেছেন এখনো। এরইমধ্যে শতরান পার হয়েছে।

আগের দিন ৫৪ রানে অপরাজিত থাকা মাহমুদউল্লাহ ২য় দিনে নেমেই দলের রানের চাকা সচল করেন। আগ্রাসী ভঙ্গিতে খেলে স্কোর বাড়ানোর চেষ্টা করেন। তাতে শতভাগ সফল তিনি।

২য় দিনের ১ম সেশনেই সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন রিয়াদ। সবমিলিয়ে নিজের টেস্ট ক্যারিয়ারের ৫ম সেঞ্চুরি। শতক হাঁকাতে গিয়ে খেলেছেন ১১ টি বাউন্ডারি ও ১টি ওভার বাউন্ডারি।

৩৫ বছর বয়সী মাহমুদউল্লাহর এখনো দলকে অনেক দেয়ার বাকি। এখনো নিজেকে উজাড় করে দেয়ার তাড়না আছে তার। ৮ নাম্বারে নেমে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেটিরই জানান দিলেন অভিজ্ঞ এই ব্যাটসম্যান।

 খেলাধুলা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ