বৃহস্পতিবার , ০২ ডিসেম্বর ২০২১ |

এবার উত্তরাঞ্চলে ‘রাখাইন স্টাইলে’ অভিযানে মিয়ানমার বাহিনী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক   শনিবার , ২৩ অক্টোবর ২০২১

মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলে হাজার হাজার সেনা সমাবেশের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে জাতিসংঘ। ওই অঞ্চলে রাখাইনে রোহিঙ্গাদের ওপর চালানো গণহত্যার মতো ঘটনার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

জাতিসংঘের মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ রেপোর্টিয়ার টম অ্যান্ডুস শুক্রবার এ অভিযানের আশঙ্কার কথা জানান। জাতিসংঘ বলেছে, মিয়ানমার দেশটির উত্তরাঞ্চলে হাজার হাজার সেনা সমাবেশের রিপোর্টে তারা দেশটিতে আরও বড় ধরনের মানবাধিকার বিপর্যয়ের আশঙ্কা করছে।

গত ফেব্রুয়ারিতে অভ্যুত্থানের পর থেকেই সেখানে বিশৃঙ্খল অবস্থা বিরাজ করছে। টম অ্যান্ডুস বলেন, ‘মিয়ানমারের এই অংশের লোকেরা আরও বেশি গণহত্যার মুখোমুখি এমন পরিস্থিতির আমাদের সকলের প্রস্তুত থাকা উচিত। আমি আশা করছি, আমার এই আশঙ্কা ভুল প্রমাণিত হোক।’

স্থানীয় পর্যবেক্ষক গ্রুপের হিসাবে, দেশটিতে জান্তা বিরোধীদের ওপর চালানো রক্তক্ষয়ী অভিযানে ১ হাজার ১শ’র বেশি বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছেন। এ পর্যন্ত ৮ হাজারের বেশি লোককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জাতিসংঘে বার্ষিক মানবাধিকার রিপোর্ট উপস্থাপনকালে অ্যান্ডুস বলেন, তিনি তথ্য পেয়েছেন যে মিয়ানমার দেশটির দুর্গম উত্তর ও উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলে হাজার হাজার সৈন্য এবং ভারী অস্ত্র মোতায়েন করছে।

তিনি বলেন, তথ্যগুলো ইঙ্গিত দেয় যে, সামরিক জান্তা মানবতার বিরুদ্ধে সম্ভাব্য অপরাধ এবং যুদ্ধাপরাধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। সামরিক জান্তার এ ধরনের কৌশলগুলো আগে ২০১৬ এবং ২০১৭ সালে রাখাইন রাজ্যে রোহিঙ্গাদের বিরুদ্ধে গণহত্যার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়।

এই অভিযানে ৭ লাখ ৪০ হাজার রোহিঙ্গা রাখাইন রাজ্য থেকে পালিয়ে যেতে বাধ্য হন। জাতিসংঘ বলেছে, এই অভিযানে বিপুলসংখ্যক রোহিঙ্গা গণহত্যার শিকার হয়েছেন। রাখাইন রাজ্যে গণহত্যার আগে যেভাবে সামরিক সমাবেশ করা হয়েছে, এবার দেশটির উত্তরাঞ্চলে একইভাবে সামরিক সমাবেশ ঘটানো হচ্ছে।


 সারাবিশ্ব থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ