বৃহস্পতিবার , ০২ ডিসেম্বর ২০২১ |

আইডিয়ালের পর সিটি ও ঢাকা কলেজ বন্ধ ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক   বৃহস্পতিবার , ২৫ নভেম্বর ২০২১

বাসে হাফ ভাড়া নিয়ে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন ঘিরে সাম্প্রতিক কিছু ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে ঢাকা কলেজ ও সিটি কলেজ বন্ধ ঘোষণা করেছে কর্তৃপক্ষ। এর আগে কলেজ প্রশাসন আইডিয়াল কলেজ বন্ধ ঘোষণা করেন।

হাফ ভাড়া নিশ্চিতের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের ওপর ছাত্রলীগের হামলার পর ঢাকা কলেজ ও আইডিয়াল কলেজের মধ্যে উত্তেজনা বাড়ে। এর মধ্যে ঢাকা কলেজের উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষার্থীর ওপর বুধবার হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এর পর বিকেলের দিকে আইডিয়াল কলেজে হামলা চালায় ঢাকা কলেজের কিছু শিক্ষার্থী।

এর আগে মঙ্গলবার হাফ ভাড়া সমাবেশ শেষে আইডিয়াল কলেজের রায়হান উদ্দিন মাহি নামে এক শিক্ষার্থীকে তুলে নেয় ঢাকা কলেজ ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। পাঁচ ঘণ্টার দেনদরবার শেষে ছাড়া পাওয়ার পর দু’দিন আইডিয়াল কলেজ বন্ধ থাকার ঘোষণা দেয় কলেজ প্রশাসন।

ঢাকা কলেজ প্রশাসন বলছেন, সাম্প্রতিক সময়ে কিছু ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার স্বার্থে সকল বিভাগীয় প্রধান ও শিক্ষককে প্রতিদিন সকাল ১০টা হতে বিকেল ৪টা পর্যন্ত কলেজে উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ করা হলো।

এছাড়া আইন শৃঙ্খলা পরিপন্থী কোনো কর্মকাণ্ডে ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীরা যাতে জড়িত না হয়, সে বিষয়ে তাদের কাউন্সেলিং করার জন্য অনুরোধ করা হলো বলে জানানো হয় ঢাকা কলেজ অধ্যক্ষ অধ্যাপক আই কে সেলিম উল্লাহ খোন্দকার স্বাক্ষরিত নোটিশে।

সরেজমিনে সকাল সাড়ে ৯টায় সিটি কলেজে গিয়ে দেখা যায়, ক্লাস বন্ধ থাকলেও অফিস খোলা রয়েছে। এ সময় নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা সবুজ দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘কলেজ বন্ধ মামা। নোটিশ দিছে, দেখেন নাই। ছেলেমেয়েরা আজ আসবো না।’

আইডিয়াল কলেজের নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আলতাফ হোসেন দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘গতকাল কিছু পোলাপান কলেজে হামলা চালায়। এর পর থেকে ক্যাম্পাস বন্ধ। তবে অফিস খোলা রয়েছে।’ ঢাকা কলেজে গিয়েও দেখা যায়, ক্যাম্পাস বন্ধ রয়েছে। তবে খোলা রয়েছে প্রশাসনিক কার্যক্রম।

এর আগে আইডিয়াল কলেজ অধ্যক্ষ সূত্রে জানানো হয়, ২০২০-২০২১ শিক্ষাবর্ষের দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থীদের ‘পরীক্ষা-পরবর্তী বিশ্রামের’ জন্য আগামী ২৪ নভেম্বর থেকে ২৫ তারিখ ক্লাস বন্ধ থাকবে। ২৭ তারিখ সকাল ৯টা থেকে যথারীতি ক্লাস চলবে।

এর আগে হাফ পাসের দাবিতে মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে ছাত্ররা প্রথমে নীলক্ষেত ও পরে সায়েন্স ল্যাবরেটরিতে সমাবেশ করেন। বেলা ২টা ১০ মিনিটের দিকে ২৫ নভেম্বর আবার আন্দোলনের কর্মসূচি দিয়ে বিরতি টানেন ছাত্ররা।

তারা মিছিল নিয়ে নীলক্ষেতের দিকে যাওয়ার সময় হঠাৎ লাঠিসোঁটা নিয়ে একদল তরুণ ছাত্রদের ধাওয়া দেন। এরপর পুলিশের উপস্থিতিতে আইডিয়াল কলেজের এক ছাত্রকে ধরে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রত্যক্ষদর্শী ও হামলার শিকার শিক্ষার্থীরা বলেন, কর্মসূচির শেষ পর্যায়ে সায়েন্স ল্যাব থেকে নিউমার্কেটের মোড় ঘুরে আবার সায়েন্স ল্যাব পর্যন্ত একটি মিছিল করার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন আন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা। ওই মিছিলে ঢাকা কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মোটরসাইকেল ভাঙচুরের অভিযোগ তুলে হামলা চালান।

শিক্ষার্থীরা বলেন, প্রথম দফা হামলার পর সায়েন্স ল্যাব মোড়ে গিয়ে শিক্ষার্থীরা জড়ো হলে তাদের ওপর আরেক দফা হামলা করে ছাত্রলীগ। এই হামলার সময় রাস্তায় স্কুল-কলেজের পোশাক পরা সব শিক্ষার্থীকেই মারধর করা হয়। হামলার পর ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান দিতে দিতে তারা ঢাকা কলেজের ভেতরে চলে যান।

 শিক্ষা থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ