মঙ্গলবার , ২৯ নভেম্বর ২০২২

মৃত্যুর কাছে হেরে গেলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা

আনন্দলোক ডেস্ক   রবিবার , ২০ নভেম্বর ২০২২

মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ে শেষ পর্যন্ত হেরে গেলেন ভারতীয় বাংলা সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা। রোববার (২০ নভেম্বর) দুপুর ১২টা ৫৯ নাগাদ অনন্তলোকের পথে পাড়ি জমিয়েছেন তিনি। মাত্র ২৪ বছর বয়সে তার জীবনাবসান হলো। একাধিক ভারতীয় গণমাধ্যম তার মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছে। 

এর আগে রাতে দশবার হৃদরোগে আক্রান্ত হন ঐন্দ্রিলা। এর ফলে উৎকণ্ঠার মধ্যে ছিলেন চিকিৎসকরা। ধারণা করছিলেন, যেকোনো মুহূর্তে খারাপ সংবাদ আসতে পারে।

ভেন্টিলেশন সাপোর্টেই ছিলেন অভিনেত্রী। সিপিআর দেওয়া হয়েছিল। অন্য হাসপাতাল থেকে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক এনে পরামর্শ নেওয়া হয়। কিন্তু চিকিৎসকদের নানা ধরনের চেষ্টার পরও না ফেরার দেশে চলে গেলেন তিনি।


গত ১ নভেম্বর থেকে হাসপাতালে লড়াই চালিয়ে যাচ্ছিলেন অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা। এ দিন প্রথমে তার ব্রেন স্ট্রোক হয়। এরপর তাকে হাওড়ার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাখা হয় ভেন্টিলেশনে।

মাঝখানে অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয়েছিল। চিকিৎসকেরা জানিয়েছেন, ঐন্দ্রিলার অবস্থা স্থিতিশীল। কিন্তু ১৭ নভেম্বর জানা যায়, রক্তচাপ ওঠানামা করছে অভিনেত্রীর। সংক্রমণের জন্য কড়া কড়া ওষুধও চলছে। বৃহস্পতিবার রাত থেকেই ঐন্দ্রিলার শরীর পুরো অসাড়।

দুইবার ক্যানসারের চিকিৎসার পর সুস্থ হয়ে কাজে ফিরেছিলেন ঐন্দ্রিলা। সুস্থ হওয়ার পরই ছোট পর্দার জনপ্রিয় শো ‘দিদি নাম্বার ওয়ান’-এর মঞ্চে হাজির হয়েছিলেন। তার ক্যানসার জয়ের গল্প অনুপ্রাণিত করেছিল ভক্তদের। এরপর জি-বাংলা অরিজিনালের ছবি ‘ভোলে বাবা পার করেগা’-তে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। ‘ভাগাড়’ ওয়েব সিরিজে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি।


এদিকে তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে এসেছে টলিউড ইন্ডাস্ট্রিতে। সবাই প্রার্থনা করছিলেন, ঐন্দ্রিলা যেন ফিরে আসেন। ঐশ্বিরিক মিরাকেলের প্রত্যাশা করছিলেন। কিন্তু তার আর হলো না!

ভারতীয় বাংলা সিরিয়ালের পরিচিত মুখ ঐন্দ্রিলা। ‘ভোলে বাবা পার করেগা’তে অনির্বাণ চক্রবর্তীর মেয়ের চরিত্রে দেখা গিয়েছিল তাকে। এ ছাড়া ‘ভাগাড়’ সিরিজ়ে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন তিনি। তবে ‘জিয়ন কাঠি’ ধারাবাহিকে অভিনয়ের মাধ্যমেই জনপ্রিয়তা হয়েছিলেন ঐন্দ্রিলা।


ঐন্দ্রিলার এই যুদ্ধে জীবনের শেষ দিন পর্যন্ত যিনি পাশে ছিলেন, তিনি প্রেমিক সব্যসাচী। এই জুটির রূপকথার গল্পে কলকাতার গণমাধ্যম আনন্দবাজার বলছে এভাবে, সূচনা ২০১৭ সালে। ঐন্দ্রিলার প্রথম ধারাবাহিক ‘ঝুমুর’ এর সেটে প্রথম দেখা। তবে সেই দেখাতেই যে তারা একে অপরকে মন দিয়ে ফেলেছিলেন, তা নয়। ধীরে ধীরে ফোনে কথাবার্তা শুরু তারপর ভালবাসা।

সব্যসাচীকে পাশে রেখেই এই ঐন্দ্রিলা দ্বিতীয়বার ক্যানসার জয় করেছেন। এবারের ১৯ দিনের লড়াইয়েও সবসময় পাশে ছিলেন।

দৈনিক দেশকাল/জেডইউ/ ২০ নভেম্বর, ২০২২

 আনন্দলোক থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ