মঙ্গলবার , ২৫ জুন e ২০২৪

অনলাইন ডেস্ক:ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সশস্ত্র সংগঠন হামাস নিয়ন্ত্রিত গাজায় এক মাসের বেশি দিন ধরে তুমুল যুদ্ধ চলছে। ইসরায়েলি বাহিনীর হামলায় গাজায় নিহতের সংখ্যা সাড়ে ১২ হাজার ছাড়িয়েছে। আহত হয়েছে ৩০ হাজারের বেশি। ইসরায়েলি বাহিনীর অবিরাম বোমাবর্ষণে গাজায় হাজার হাজার ভবন ধসে পড়েছে। সহসাই এই যুদ্ধ বন্ধ হচ্ছে না বলে আশঙ্কা বিশ্লেষকদের। এদিকে গতকাল শনিবার ওয়াশিংটন পোস্টের এক খবরে বলা হয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল এবং হামাস একটি সম্বাব্য চুক্তির দ্বারপ্রান্তে। কয়েক ডজন জিম্মি বন্দির বিনিময়ে পাঁচ দিনের যুদ্ধবিরতি হতে পারে। আগামী কয়েক দিনের মধ্যে জিম্মিদের মুক্তি দেওয়া হতে পারে বলে এই চুক্তির সঙ্গে সম্পৃক্ত ব্যক্তির বরাত দিয়ে মার্কিন এ মিডিয়া এ তথ্য জানিয়েছে। তবে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু শনিবার জানান, সম্প্রতি অনেক ভুল রিপোর্ট বের হচ্ছে। কিছু জিম্মি মুক্তির বিনিময়ে যুদ্ধবিরতির চুক্তি হয়েছে বলে এই তথ্যও উড়িয়ে দেন নেতানিয়াহু। তিনি বলেছেন, ‘এখন পর্যন্ত কোনো চুক্তি হয়নি।’ তিনি বলেন, আমরা সকল জিম্মিদের ফিরিয়ে আনতে চাই। তাদের সবাইকে ফিরে আনতে আমরা সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছি। এ ছাড়া ওয়াশিংটন পোস্টের প্রতিবেদনের সম্পর্কে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন হোয়াইট হাউজের একজন মুখপাত্র। তিনি বলেছেন, এখন পর্যন্ত চুক্তি হয়নি। তবে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে একটি চুক্তি করতে কাজ চলছে। গত ৭ অক্টোবর গাজা থেকে ইসরায়েল অভিমুখে হাজার হাজার রকেট ছুড়ে হামাস। সেইসঙ্গে ইসরায়েলি সীমান্ত ভেদ করে দেশটিতে তাণ্ডব চালায় হামাসের যোদ্ধারা। এতে ইসরায়েলে নিহত হয়েছে ১২০০। আহত তিন হাজারের বেশি। এ ছাড়া ২৪০ এর বেশি জনকে জিম্মি করে হামাস। এরপরেই পাল্টা আক্রমণ শুরু করে ইসরায়েলি বাহিনী।

 জাতীয় থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ