শুক্রবার , ১৯ July ২০২৪

রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নাজমুল হোসেনকে জানাজার সময় ডান্ডাবেড়ি পড়িয়ে রাখাকেকেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না সরকারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে তা জানতে চেয়ে রুলদিয়েছেন আদালত। দুর্ধর্ষ অপরাধী ও জঙ্গি ছাড়া আর কোনো বন্দীকে ডান্ডাবেড়ি না পড়ানোরআদেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।  মঙ্গলবার হাইকোর্টজেল কর্তৃপক্ষকে ২০২২ সালের ২১ নভেম্বর কারা অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিটি কঠোরভাবে অনুসরণকরার নির্দেশ দিয়েছেন। বিজ্ঞপ্তিতে কুখ্যাত অপরাধী এবং জঙ্গিসহ বিশেষ প্রকৃতির বন্দীদেরকেআদালতে হাজির করার সময় বা স্থানান্তরের সময় নিরাপত্তাজনিত কারণে ডান্ডাবেড়ি পড়ানোরনির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

পটুয়াখালীর ছাত্রদল নেতা মো. নাজমুল হোসেন তার বাবার জানাজায় অংশ নেওয়ার সময়ডান্ডাবেড়ি পড়া অবস্থায় ছিলেন। এ বিষয়ে এক রিট আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে নাজমুল হোসেনকেজানাজার সময় ডান্ডাবেড়ি পড়িয়ে রাখাকে কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না সরকারের সংশ্লিষ্টকর্তৃপক্ষের কাছে তা জানতে চেয়ে রুল দিয়েছেন আদালত।

বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আতাবুল্লাহর হাইকোর্ট বেঞ্চ এআদেশ ও রুল দেন। বিস্ফোরক দ্রব্য আইনের মামলায় গত বছরের ২০ ডিসেম্বর পটুয়াখালীর মির্জাগঞ্জউপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহ্বায়ক নাজমুলকে গ্রেপ্তার করা হয়।

 আইন-অপরাধ থেকে আরোও সংবাদ

ই-দেশকাল

আর্কাইভ